মোস্তাফিজুর রহমান লালমনিরহাট প্রতিনিধিঃ লালমনিরহাট জেলার পাটগ্রামে ওয়াজেদ আলী (৩২) নামের এক বিবাহিত পুরুষের যৌনাচারের শিকার হয়ে এক শিশু শিক্ষার্থী অন্তঃসত্ত্বা হয়েছেন বলে জানা গেছে। ঐ শিক্ষার্থী স্থানীয় একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শেণির ছাত্রী। ওয়াজেদ আলী পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারী ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডের ডাঙ্গাপাড়া এলাকার তহিদুল ইসলামের ছেলে। ওয়াজেদ আলী সীমান্ত এলাকার একজন  চোরাকারবার যৌনাচারের শিকার মেয়েটির বাবা পেশায় দিনমজুর। এ বিষয়ে ভুক্তভোগী মেয়েটির বাবা পাটগ্রাম থানায় ওয়াজেদ আলীর বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন।

মেয়েটির পরিবার সূত্রে জানা গেছে, ওয়াজেদ আলী মেয়েটির প্রতিবেশি। ওয়াজেদ আলী বিভিন্ন সময়ে ঐ শিশু শিক্ষার্থীকে বিভিন্নভাবে প্ররোচিত করে ও ফুঁসলিয়ে যৌন সম্পর্ক গড়ে তোলে। পরিবারের সদস্যদের কাছে যৌনাচারের বিষয়টি বলে দিলে তাকে মেরে ফেলা হবে বলে ভয়-ভীতি দেখায়। ওয়াজেদের ভয়ে মেয়েটি এই যৌনচারের বিষয়টি চেপে যায়। এক পর্যায়ে বিভিন্ন দিক থেকে মেয়েটির শারীরিক পরিবর্তন দৃশ্যমান হলে মেয়েটির পরিবার পাটগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে (গর্ভ) প্রেগনেন্সি পরীক্ষা করান। মেয়েটি ছয় মাসের অন্তঃসত্ত্বা বলে কর্তব্যরত চিকিৎসক নিশ্চিত করেন। পরে মেয়েটির বাবা বুড়িমারী ইউপির ১ নং ওয়ার্ডের সদস্য হাফিজুল ইসলামকে বিষয়টি অবগত করান। হাফিজুল ইসলাম থানা পুলিশের কাছে যেতে বলেন । ইউপি সদস্যের পরামর্শে মেয়েটির বাবা পাটগ্রাম থানায় ওয়াজেদ আলীর বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দেন।

পাটগ্রাম থানার অফিসার ইন চার্জ (ওসি) সুমন কুমার মোহন্ত অভিযোগ পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, বিষয়টি লালমনিরহাট জেলা পুলিশ সুপার মহোদয়কে অবগত করানো হয়েছে। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।