নিতিশ সানা, কয়রাঃ  দরজায় কড়া নাড়ছে আসন্ন পবিত্র ঈদুল আজহা। কয়েক দিন বাদেই কোরবানির ঈদ। মুসলিম ধর্ম অবলম্বীদের সব থেকে বড় ধর্মীয় উৎসবের অন্যতম ঈদুল আজহা। আর এই ঈদে মুসলিরা আল্লাহকে খুশি রাখতে পশু জবাই করে।  ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে পশু জবাইয়ের বিভিন্ন ধরনের সরঞ্জাম তৈরিতে ব্যাস্ত সময় পার করছে খুলনার উপকূলীয় কয়রার কামার পল্লী। যেন দম ফেলার সময় নেই তাদের। তবে লোহা আর কয়লার দাম বাড়লেও বাড়েনি তৈরী মালের। তারপরও খুশীর আমেজ বিরাজ করছে কামারদের মুখে।

সরেজমিনে দেখা যায়, কোরবানির হাতিয়ার দা,ছুরি চাপাটিসহ অনান্য লোহার সরঞ্জাম তৈরীর ধুম পড়েছে কামার পাড়ায়। টুং টাং শব্দে মুখরিত এখানের কামাড় পাড়া। এবছর করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের প্রভাবে থমকে ছিলো এ পল্লী। তবে কোরবানির  ঈদকে সামনে রেখে  উপজেলার সদর, আমাদি কামার পল্লী ও হায়াতখালি  উপজেলার   শতাধিক স্থানে তৈরী হচ্ছে কোরবানীর হাতিয়ার। কয়লার দগদগ আগুনে লোহা পুড়িয়ে হাতল দিয়ে পিটিয়ে তারা তৈরী করছেন, দা,ছুড়ি,বটি,চাপাটি,কুড়ালসহ অনান্য সরঞ্জাম। তাকে তাকে সাজিয়ে রেখেছেন এসব হাতিয়ার ।

তবে রফিকুল গাজী বলেন, বাপ-দাদার পেশা পর্যায় ক্রমে আমি টিকিয়ে রাখতে প্রায় ৪০ বছর এ পেশায় আছ।   তবে এবছর করোনা ভাইরাসের কারণে দীর্ঘদিন যাবৎ ব্যবসা বন্ধ ছিল। তাই  কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে আমরা প্রস্তুত করেছি দা, ছুরি, চাপাতি নানান সরঞ্জাম তবে ঈদের এখনো কয়েকদিন বাকি আছে আশা করছি এর মধ্যেই বেচাকেনা হবে। এভাবে বলছিলেন আর অনেকে।