ডা: মো: হাফিজুুর রহমান (পান্না), রাজশাহী ব্যুরো : জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস যথাযথ মর্যাদায় বিভিন্ন কর্মসূচিতে পালন করেছে রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ।
শনিবার বেলা ১১টায় কুমারপাড়া দলীয় কার্যালয়ের পাশে স্বাধীনতা চত্বরে বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতার প্রতিকৃতিতে মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সিটি
মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটনের নেতৃত্ব পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন নেতৃবৃন্দ। এরপর মহানগর আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। পরে দুপুরে মানবভোজ বিতরণ করা হয়। আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সিটি মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন। এ সময় মেয়র বলেন, ১৫ আগস্ট বাঙালি জাতির এক বেদনাবিধুর দিন। ১৯৭৫ সালের এই দিনে স্বাধীনতার মহান স্থপতি, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। আজকের এই দিনে আমরা বঙ্গবন্ধুর যেসব খুনি এখনো পলাতক আছে, তাদের দেশে ফিরে এনে দ্রæত বিচার কার্যকর করার জোর দাবি জানাচ্ছি।সভা পরিচালনা করেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু
সরকার।

সভায় মহানগর আওয়ামী লীগের সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি বিশিষ্ট সমাজসেবী শাহীন আকতার রেনী বলেন, বঙ্গবন্ধু মানেই বাংলাদেশ। আমাদের নতুন প্রজন্মকে বঙ্গবন্ধুকে জানতে হবে। বঙ্গবন্ধু সর্ম্পকিত
বই বেশি বেশি পড়তে হবে।

সভায় সাবেক সহ-সভাপতি মাহফুজুল আলম লোটন, মুক্তিযোদ্ধা নওশের আলী, অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশা, নিঘাত পারভীন, সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোস্তাক হোসেন ও রেজাউল ইসলাম বাবুল, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আসাদুজ্জামান আজাদ ও এ্যাডভোকেট আসলাম সরকার, সাবেক যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক মীর তৌফিক আলী ভাদু, সাবেক উপ-দপ্তর সম্পাদক শফিকুল ইসলাম দোলন, সাবেক উপ-প্রচার সম্পাদক মীর ইসতিয়াক আহম্মেদ লিমন, সাবেক স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডাঃ ফ.ম.আ জাহিদ, সাবেক ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম জাহিদ,

সাবেক সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক কামার উল্লাহ সরকার কামাল, সাবেক কার্যনির্বাহী সদস্য আহসানুল হক পিন্টু, ডা. তবিবুর রহমান শেখ, রবিউল ইসলাম, মকিদুজ্জামান জুরাত ও বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি ডা. আনিকা ফারিহা জামান অর্ণাসহ মহানগর আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।