হালিম সৈকত, কুমিল্লা।।   শোকাবহ ১৫ আগষ্ট জাতীয় শোক দিবসে বাঙালি জাতির ইতিহাসের অমর মহানায়ক পবিত্র মাতৃভূমির জন্মদাতা সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের   ৪৫ তম শাহাদাৎ বার্ষিকীতে বাঙালি জাতির ইতিহাসের  কলঙ্কময় হৃদয়ের রক্তক্ষরণ বেদনাবিধুর ভয়াল কালরাতে মানবসভ্যতার ইতিহাসের কুখ্যাত খুনি বিশ্বাসঘাতক বেঈমান হায়েনার হাতে নির্দয় নির্মম নিষ্ঠুরতম বর্বরোচিত ও নৃশংসভাবে নিহত জাতির জনক বঙ্গবন্ধুসহ সকল শহীদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধাঞ্জলি জানিয়ে বঙ্গবন্ধুর ৪৫ তম শাহাদাত বার্ষিকী ও শোক দিবস পালন করেছে কলাকান্দি আ’লীগ ও অঙ্গসংগঠন। অন্য রকম আয়োজনে পালন করা হয় শোক দিবসটি। এত সুন্দর প্যান্ডেল আর আয়োজন অন্য কোথাও চোখে পড়েনি।   
১৫ আগস্ট বাদ আসর মিলাদ ও দোয়ার মাধ্যমে জাতির জনকসহ তাঁর পরিবারের সকলের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। এর আগে কুমিল্লা ২ ( তিতাস হোমনা) আসনের সংসদ সদস্য সেলিমা আহমাদ মেরী’র    ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন। পরে শোকাবহ আগস্ট নিয়ে কথা বলেন, স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা ও সৌদি আরবের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী গাজী শাহজালাল।  কলাকান্দি বাজারে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোঃ মানিক সরকার,  দক্ষিণ কোরিয়া প্রবাসী রুবেল সরকার,  কলাকান্দি ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সহ সভাপতি ইয়ামিন সরকার,  বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোঃ আলাউদ্দিন বেপারী,  ২ নং ওয়ার্ড আ’লীগের সভাপতি জয়নাল আবেদীন, নাদিম সরকারসহ বিভিন্ন স্তরের নেতৃবৃন্দ।  পরে ৬  ডেক খিচুড়ি সকলের মাঝে বিতরণ করেন গাজী শাহজালালসহ নেতৃবৃন্দ।           
 উল্লেখ্য ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট ভোর রাতে সেনাবাহিনীর কিছুসংখ্যক বিপথগামী সদস্য ধানমন্ডির ৩২ নং বাসভবনে বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করে। ঘাতকরা শুধু বঙ্গবন্ধুকেই হত্যা করেনি, তাদের হাতে একে একে প্রাণ হারিয়েছেন বঙ্গবন্ধুর সহধর্মিনী বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব, বঙ্গবন্ধুর সন্তান শেখ কামাল, শেখ জামাল ও শিশু শেখ রাসেলসহ পুত্রবধু সুলতানা কামাল ও রোজি জামাল।