নাদিম আহমেদ অনিক,নওগাঁ প্রতিনিধি: ‘মানুষ মানুষের জন্য’ এই সত্য কথাটিকে বাস্তবে রূপ দিয়েছেন নওগাঁ জেলার বদলগাছী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু তাহির। ইতিমধ্যেই তিনি মানবিক ও সেবামুলক কাজ করে প্রশংসা কুড়িয়েছেন। সম্প্রতি তিনি দৃষ্টি প্রতিবন্ধী আবু সাঈদকে জীবিকার জন্য উপজেলা প্রশাসন ও সকলের সার্বিক সহযোগিতায় নিজ অর্থায়নে সবজির দোকান করে দিয়ে তিনি দৃষ্টান্ত স্থাপন করছেন। সেই সাথে আবু সাঈদকে নগদ দুই হাজার টাকাও প্রদান করেছেন। 
জানা যায়, গত ২০১৯ সালের ১৩ অক্টোবর বদলগাছীতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসেবে যোগদান করেন মো. আবু তাহির। যোগদানের পর থেকে তিনি উপজেলায় মানবিক ও সেবামুলক কাজ করে যাচ্ছেন। এলাকাবাসীরা তাদের দাবী নিয়ে নির্ভয়ে ইউএনও’র কাছে যেতে পারছেন।


উপজেলার কোলা ইউনিয়নের চকতাহের গ্রামের দেলোয়ার হোসেনের ছেলে দৃষ্টি প্রতিবন্ধী আবু সাঈদ। ছোট থেকেই চোখে ভাল দেখতে পেতেন না। আর এভাবেই বড় হতে থাকেন তিনি। দৃষ্টি প্রতিবন্ধী আবু সাঈদ এক সময় ভ্যান চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করতেন। দিন দিন দৃষ্টিশক্তি যখন ক্ষীন হয়ে আসলে ভ্যান চালানো ছেড়ে দেন। গত পাঁচ মাস আগে বদলগাছী-আক্কেলপুর সড়কের চক-তাহের যাত্রী ছাউনিতে ছোট্ট পরিসরে কয়েক কেজি আলু ও কিছু শাকসবজি নিয়ে ব্যবসা করার চেষ্টা করেন। আর এ কাজে তার স্ত্রী সেলিনা ও ১০বছরের ছেলে আব্দুল্লাহ সহযোগিতা করতেন।
কিন্তু আর্থিক দৈন্যতায় বেশি করে মালামাল দোকানে উঠাতে পারছিলেন না। কিছুদিন আগে ওই পথে ইউএনও মো. আবু তাহির যাওয়ার সময় বিষয়টি নজরে আসে। এরপর তিনি তাকে ব্যবসার আরো উন্নয়নের জন্য প্রতিশ্রুতি দেন। আর সে মোতাবেক মঙ্গলবার দৃষ্টি প্রতিবন্ধী আবু সাঈদকে নগদ টাকা, ক্যাশ বাক্স, দাঁড়ি পাল্লা, আলু, পটলসহ বিভিন্ন সবজি কিনে দোকান সাজিয়ে দেন। সেইসাথে এলাকাবাসীকে তার দোকান থেকে সবজি কেনার অনুরোধ করেন।


দৃষ্টি প্রতিবন্ধী আবু সাঈদ বলেন, এক সময় আইসক্রিমের ব্যবসা করে জীবিকা নির্বাহ করতাম। তারপর ভ্যান চালানো শুরু করি। যা ছিল খুবই কষ্টকর। কিন্তু দৃষ্টি শক্তি কমে আসায় ভ্যান চালানো ছেড়ে দিয়ে স্বল্প পুঁজি নিয়ে সবজির ব্যবসা শুরু করি। এলাকাবাসীরা যথেষ্ট সহযোগীতা করেন। আর সবজিগুলো ওজনের সময় ওজনের বাটকারা হাতে নিয়ে অনুভব করি। এরপর দাঁড়িপাল্লায় দিয়ে ক্রেতাদের ওজন করে দিয়। এভাবেই ওজন পরিমাপে অভিজ্ঞতা হয়ে যায়। ইউএনও’র প্রতি কৃতজ্ঞা প্রকাশ করে তিনি বলেন, একজন প্রতিবন্ধী মানুষ হিসেবে আমাকে এভাবে এতো সহযোগী করা হবে তা কল্পনা করতে পারিনি।

স্থানীয় আরাফাত হোসেন তুষার, সিহাব হোসেন ও রফিকুল ইসলাম বলেন, আবু সাঈদ নিন্তাত দরিদ্র। কষ্ট করে জীবিকা নির্বাহ করতেন। শুধু প্রশাসনিক কর্মকতা নয়, এলাকার অনেক বিত্তবান আছেন যারা চাইলেই অসহায়দের সহযোগীতা করে প্রতিষ্ঠিত করতে পারেন। মানবিক ও সেবামুলক কাজ করে প্রশংসা কুড়িয়েছেন ইউএনও।
বদলগাছী উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু তাহির বলেন, উপজেলার বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাদের অর্থায়নে দৃষ্টি প্রতিবন্ধী আবু সাঈদকে জীবিকার আয়ের উৎসের জন্য দোকান করে দেয়া হয়েছে। এছাড়া সমাজসেবা কর্মকর্তা তার জন্য প্রতিবন্ধী ভাতা এবং তার গর্ভবতী স্ত্রীর জন্য মার্তৃত্বকালীন ভাতার ব্যবস্থা করে দিয়েছে। উন্নত বাসস্থানের জন্য পরবর্তীতে আবু সাঈদকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী প্রতিশ্রুত একটি ঘর উপহার দেয়ার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন তিনি।
উল্লেখ্য, গত ৩০জুন উপজেলার আধাইপুর ইউনিয়নের রসুলপুরগ্রামের বাসিন্দা বৃদ্ধ মোসলেম উদ্দিনকে মুদি দোকান করে দিয়েছেন ইউএনও মো. আবু তাহির