ডা: মো: হাফিজুুর রহমান (পান্না), রাজশাহী ব্যুরো : জামাত-বিএনপির প্রত্যক্ষ মদদে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা দিবসের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদসভা করেছে রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগ। আজ শ্রক্রবার রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। কর্মসূচির মধ্যে ছিল প্রতিবাদসভা, আইভি রহমানসহ শহীদদের স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন ও দোয়া মাহফিল ।

রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক এমপি মেরাজ উদ্দিন মোল্লা হঠাৎ অসুস্থতার কারণে সভাপতির অনুমতিক্রমে সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক এমপি আব্দুল ওয়াদুদ দারা। সভা পরিচালনা করেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও বাঘা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট লায়েব উদ্দিন লাভলু।

রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক এমপি আব্দুল আব্দুল ওয়াদুদ দারা বলেন, ঘাতকেরা থেমে নেই। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমাসহ সপরিবারে হত্যা করেছে। এরপরে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা চালিয়ে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনাকে হত্যার চক্রান্ত করেছে জামাত বিএনপির মদদে।

শেখ হাসিনাকে বারবার হত্যা চেষ্টা করেও আল্লাহর রহমতে বাংলার মেহনতী দুঃখী মানুষের সেবা করে চলেছেন। এখনও ষড়যন্ত্র চলছে। মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তিকে ঐক্যবদ্ধভাবে রুখে দাঁড়াতে হবে।

তিনি আরো বলেন, জামাত-বিএনপি রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় ১৭ আগস্ট সারাদেশে সিরিজ বোমা হামলা চালায়। এদেশকে জঙ্গী মৌলবাদ রাষ্ট্রে পরিণত করার জন্য এ ষড়যন্ত্র করেছিল।

এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক নেতা আমানুল হক দুদু, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাবেক সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ এসএম একরামুল হক, জেলা স্বাধীনতা চিকিৎসা পরিষদের সভাপতি প্রফেসর ডাঃ চিন্ময় কুমার দাস, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক প্রভাষক আসাদুজ্জামান আসাদ, বাগমারা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ অ্যাডভোকেট জাকিরুল ইসলাম সান্টু, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট শরিফুল ইসলাম, বানেশ্বর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান অ্যাডভাকেট আব্দুস সামাদ মোল্লাহ, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম মুক্তি, জেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি নার্গিস শেলী, সাধারণ সম্পাদক বিপাশা খাতুনসহ প্রমুখ।