মোস্তাফিজুর রহমান লালমনিরহাটজেলা প্রতিনিধিঃ লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলায় যুবকের থাপ্পড়ে অসুস্থ হয়ে অটোরিকশা (মেকার) কেশব চন্দ্র বর্মন (৫৫) নামে এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে। এঘটনায় কেশব চন্দ্র বর্মনের স্ত্রী বাদী হয়ে মামালা করেছে।
শনিবার সকালে মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য লমনিরহাট সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। শুক্রবার (২১ আগস্ট) রাতে উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। এর আগে দুপুরে উপজেলার মদাতী ইউনিয়নের দক্ষিণ মুসরাত মদাতী মালীর স্কুলে এ ঘটনা ঘটে।
জানা যায়, কেশব চন্দ্র বর্মন (৫৫) উপজেলার মদাতী ইউনিয়নের দক্ষিণ মুসরাত মদাতী গ্রামের মৃত গগন চন্দ্র বর্মনের ছেলে। তিনি অটোরিকশা ম্যাকানিক্সের (মেকার) কাজ করেন।পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, দুপুরে মালীর স্কুল মাঠে ১৫/২০ যুবক ফুটবল খেলছিলো। ওই সময় হঠাৎ করে ফুটবল খেলা নিয়ে যুবকদের মধ্যে দুগ্রুপে মারামারি শুরু হয়।পরে তাদের মারামারি কেশব চন্দ্র বর্মন থামাতে গেলে ওই যুবকরা কেশব চন্দ্র বর্মনকে গালাগালি করেন।পরে লিয়ন নামে এক যুবক কেশব চন্দ্র বর্মনকে থাপ্পড় মারেন সেখানে তিনি অসুস্থ হয়ে পরে যান।পরে স্থানীয়রা অসুস্থ কেশব চন্দ্র বর্মনকে উদ্ধার করে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করেন।সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয়।কালীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আরজু মোঃ সাজ্জাদ হোসেন বলেন, তার পরিবার অভিযোগ করলে তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।