খোরশেদ আলম, সাভার প্রতিনিধিঃ  ঢাকার ধামরাইয়ে বেপড়োয়া গতির একটি কাভার্ড ভ্যানের ধাক্কায় সবজি বোঝাই অপর পিকআপে থাকা এক কাঁচামাল ব্যবসায়ী ও এর চালকসহ দুই জন নিহত হয়েছেন। আহত আরো একজন ধামরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এঘটনায় ঘাতক কাভার্ড ভ্যানটিকে স্থানীয়দের সহায়তায় পুলিশ জব্দ করতে পারলেও এর চালক ও সহযোগী পালিয়ে গেছে। 
রবিবার সকাল ৯টার দিকে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের ডাউটিয়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।
নিহত কাঁচামাল ব্যবসায়ী হেলাল উদ্দিন মানিকগঞ্জ জেলার সাটুরিয়া উপজেলার বরুন্ডি এলাকার মৃত নৈমুদ্দিনের ছেলে ও নিহত পিকআপ চালক মফিদুল মোল্লা রাজু (৩০) মশিউর রহমান মোল্রা সাং- লাহুরিয়া, থানা লোহাগড়া জেলা নড়াইল,
পুলিশ জানায়, সকালে মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া থেকে পিকআপ বোঝাই সবজি নিয়ে বিক্রির উদ্দেশ্যে আশুলিয়ার বাইপাইল কাঁচামালের আড়তে যাচ্ছিলেন ব্যবসায়ী হেলাল উদ্দিন। পরে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের ডাউটিয়া এলাকায় পৌছলে তাদের সামনে থাকা একটি চলন্ত কাভার্ড ভ্যান হঠাৎ ব্রেক করে। এসময় ঢাকাগামী পেছন থেকে আসা জননী এক্সপ্রেস এন্ড পার্সেল সার্ভিসের (ঢাকা মেট্রো ট-২০-০৪১২) বেপড়োয়া গতির একটি কাভার্ড ভ্যান সামনের সবজি বোঝাই ট্রাকটিকে (ঢাকা মেট্রো ন-১৩-৯৫৫৯) সজোড়ে ধাক্কা দেয়। 
পরে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সবজি বোঝাই পিকআপটি সামনে থাকা কাভার্ড ভ্যানের সাথে ধাক্কা লেগে দুমড়ে মুচড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই কাঁচামাল ব্যবসায়ী হেলাল উদ্দিন মারা যান। এসময় গুরুতর আহত অবস্থায় পিকআপ ভ্যানের চালক ও হেলপারকে ধামরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রেরণ করা হলে চালক মফিদুলের মৃত্যু হয়। পরে স্থানীয়দের সহযোগিতায় ঘাতক জননী এক্সপ্রেস এন্ড পার্সেল সার্ভিসের কাভার্ড ভ্যানটিকে জব্দ করা গেলেও এর চালক ও সহযোগী পালিয়ে যায়। 
এবিষয়ে ধামরাই থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই আজাহারুল ইসলাম) জানান, সড়ক দুর্ঘটনায় ঘটনাস্থলেই পিকআপ ভ্যানে থাকা কাঁচামাল ব্যবসায়ী হেলাল উদ্দিন মারা যান। এসময় আহত পিকআপ ভ্যানের চালক ও হেলপারকে ধামরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রেরণ করা হলে পরবর্তীতে চালক মফিদুলের মৃত্যুর বিষয়টি কর্তব্যরত চিকিৎসক নিশ্চিত করেন। 
সাভার হাইওয়ে থানার উপ-পরিদর্শ (এসআই) মোসলেম উদ্দিন জানান, ঘাতক জননী এক্সপ্রেস এন্ড পার্সেল সার্ভিসের কাভার্ড ভ্যানটি জব্দ করা  হয়েছে। তবে এর চালক ও হেলপার পলাতক রয়েছে। একই সাথে চলন্ত সবজি বোঝাই ট্রাকটির সামনে হঠাৎ ব্রেক করা অপর কাভার্ড ভ্যানটিও জননী এক্সপ্রেস এন্ড পার্সেল সার্ভিসের বলে তারা জানতে পেরেছেন। তবে ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই কাভার্ড ভ্যানটিকে পাওয়া যায়নি। এঘটনায় আইনগত বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও জানান তিনি।