গঙ্গাচড়া (রংপুর) প্রতিনিধিঃ
কখনো সোসাইটি ফর সোসাল এন্ড রুরাল সার্ভিসের (এসএসআরএস) চেয়ারম্যান আবার কখনো কাতার চ্যারিটি কুয়েতসহ বিভিন্ন দেশের ডোনার সদস্য পরিচয় দিয়ে প্রতারণার মাধ্যমে গত ২ বছরে কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন সোহেল আহমেদ নামে এক প্রতারক। প্রতারণার ক্ষেত্রে চতুরতার পাশাপাশি দাতা সংস্থাকে ঢাল হিসেবে ব্যবহার করছেন তিনি। ত্রাণ বিতরণ, টিউবওয়েল সরবরাহ ও মসজিদ নির্মাণসহ নানা অপকর্মের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন সোহেল আহমেদ। করোনাকালীন সময়ে বিভিন্ন মসজিদ নির্মাণের নামে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন তিনি। সোহেল আহমেদের বাড়ি গঙ্গাচড়া উপজেলার আলমবিদিতর ইউনিয়নের খিজির পাড়া এলাকার মৃত ফায়জার আলীর ছেলে। ২০১৮ সাল থেকে সে প্রতারণা করে আসছে। প্রতিমাসে প্রতারণার মাধ্যমে লাখ টাকা বাগিয়ে নেওয়া তার কাছে কোনো বিষয়ই নয়। এনজিও’র নিবন্ধন নেই। নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক সোহেল আহমেদের প্রতারণার এ জগতের বিভিন্ন পর্যায়ে একাধিক সহযোগী রয়েছে। কেউ কেউ বিভিন্ন তথ্য দিয়ে সহায়তা করে। দক্ষিণ কোলকোন্দ মধ্যপাড়া জামে মসজিদ এর মকিম হামিদুল রহমান লেবু ফকির বলেন, প্রায় ৬ মাস আগে সোহেল আহমেদ মসজিদ নির্মাণের নামে ২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। মসজিদের কোন কাজ হয়নি। অপরদিকে গঙ্গাচড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সামসুজ্জামান লিজু বলেন, চেংমারী পূর্বপাড়া আহেলে হাদীস জামে মসজিদ কমিটির নিকট মসজিদ নির্মাণ করে দিবে বলে ২ লক্ষ ৪৫ হাজার টাকা গ্রহণ করেন সোহেল আহমেদ। তিনি মসজিদ নির্মাণ না করে গা ঢাকা দেয়। এ ব্যাপারে সোসাইটি ফর সোসাল এন্ড রুরাল সার্ভিসের চেয়ারম্যান সোহেল আহমেদের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি।