রাজশাহী ব্যুরো : রাজশাহীর বাঘায় পলো দিয়ে মাছ ধরার উৎসব অনুষ্ঠিত হয়। বাউসা ইউনিয়নের আড়পাড়া বিলে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে এই মাছ ধরার উৎসব করে গ্রামবাসী । জানা যায়, আড়পাড়া গ্রামে প্রতি বছর শীত মৌসুমে বিলে পানি কমতে শুরু করলে আশে পাশের গ্রামের মুরুব্বীদের পরামর্শে নির্ধারিত বৃহস্পতিবার প্রায় তিন শতাধিক লোক পলো নিয়ে দলবদ্ধ হয়ে মাছ ধরার উৎসব করে গ্রামবাসী। এ মাছ ধরা উৎসব গ্রামগুলোতে বিরাজ করে উৎসব মুখর পরিবেশ। শিকারীদের মধ্যে অনেকেই রুই, কাতলা, চিতল, বোয়াল, গজার, শোলসহ বিভিন্ন দেশীয় প্রজাতির মাছ ধরেন। মাছ ধরা পড়ার সাথে সাথে তাদের আনন্দে শরীক হন অনেকেই। পলো নিয়ে পানিতে এক সাথে হৈহুল্লোর করে সামনের দিকে ছন্দের তালে তালে এগিয়ে যাওয়া সৌন্দর্যের এক অপরূপ দৃশ্য।

আড়পাড়া গ্রামের মিন্টু আহম্মেদ বলেন, এলাকার মুরুব্বীদের সাথে আলোচনা করে পলো দিয়ে মাছ ধরার উৎসব করা হয়। দেশীয় উপকরণ দিয়ে মাছ শিকার করলে যেমন খরচ কম, তেমনি মাছের বংশ বিনাশ হয় না। বিলে মাছ শিকারের জন্য বাইছের ব্যবহার হয়ে আসছে বহু পুরনো কাল থেকে। বাঁশের তৈরি এই পলো দিয়ে মাছ শিকারসহ বিভিন্ন কাজেও ব্যবহার করা হয়। এরমধ্যে অনেকই ৬-৮ কেজি পর্যন্ত মাছ ধরেছে। তবে আগামীতে যে বেশি মাছ ধরবে তার জন্য পুরুস্কারের ব্যবস্থা করা হবে।

বাউসা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান শফিকুর রহমান বলেন, শুকনো জলাশয়ে প্রতি বছরের আশ্বিন মাস থেকে অগ্রহায়ণ মাস পর্যন্ত হয়ে থাকে সৌখিন মাছ শিকারিদের উৎসব। তবে দখল, দূষণ ও ভরাটসহ বিলের অস্তিত্ব সংকটের কারণে এখন আর খুব একটা চোখে পড়ে না ঐতিহ্যবাহী এই পলো উৎসব।