যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে হোয়াইট হাউজ জয়ের খুব কাছাকাছি ডেমোক্রেট প্রার্থী জো বাইডেন। ক্ষমতাসীন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের পর ৫৩৮টি ইলেকটোরাল কলেজ ভোটের মধ্যে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের হিসেব জানাচ্ছেন বাইডেন ২৬৪টি ইলেক্টোরাল কলেজ ভোটে এগিয়ে রয়েছেন যেখানে ট্রাম্পের ঝুলিতে ২১৪। ক্ষমতায় আসতে হলে ম্যাজিক ফিগার২৭০টি জয় দরকার।

২০১৬ সালে ট্রাম্পের জেতা উইসকনসিনে জয় ছিনিয়ে নিয়েছেন বাইডেন। তাছাড়া মিশিগানও তার অনুকূলে যাচ্ছিল কিন্তু সেখানে ভোট গণনা স্থগিত রাখার দাবি নিয়ে আদালতে গিয়েছেন ট্রাম্পের নির্বাচনের দায়িত্বে থাকা সংগঠন। তাদের অভিযোগ মিশিগানে ব্যালটের সঠিক হিসেব পাওয়া যাচ্ছে না। তাছাড়া উইসকনসিনেও নতুন করে গণনার দাবি তুলেছে ওই সংস্থা।

এদিকে ডোনাল্ড ট্রাম্প শিবির জর্জিয়ার কিছু এলাকায় ভোট গণনা স্থগিত করার আবেদন করেছে। জর্জিয়া একটি গুরুত্বপূর্ণ ব্যাটল গ্রাউন্ড রাজ্য যেটিতে এখনো কোনো প্রার্থী জিততে পারেন, তা ধারণা করা যায়নি। পেনসিলভানিয়ায় ভোটের দিনের তিন দিন পরে আসা পোস্টাল ব্যালট গণনার সরকারি সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল করছে রিপাবলিকানরা। ঐ রাজ্যে এখনো লাখ লাখ ভোট গণনা করা বাকি।

বর্তমান প্রেসিডেন্ট ও রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প এখন পর্যন্ত পেয়েছেন ২১৪টি ইলেকটোরাল ভোট। যদিও ভোট গণনা শেষ হওয়ার আগেই হঠাৎ নিজেকে বিজয়ী ঘোষণা করে বিতর্কে জড়িয়েছেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। এমনকি ভোট গণনা বন্ধে তিনি সুপ্রিমকোর্টের দারস্থ হওয়ার সিদ্ধান্তের কথাও জানিয়েছিলেন।

এদিকে, ভোটপ্রাপ্তির দিক দিয়ে ডেমোক্রেট প্রার্থী হিসেবে প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামাকেও ছাড়িয়ে গেছেন একই দলের প্রার্থী জো বাইডেন। ২০০৮ সালের নির্বাচনে বারাক ওবামা ছয় কোটি ৯৪ লাখ ৯৮ হাজার ৫১৬ ভোট পেয়েছিলেন। জো বাইডেন এখন পর্যন্ত ৭ কোটি ৭ লাখেরও বেশি ভোট পেয়েছেন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে এখন পর্যন্ত এত বেশি ভোট পেয়ে কোনো প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হননি।