মোস্তাফিজুর রহমান ,লালমনিরহাটঃলালমনিরহাটের পাটগ্রামে এক কিশোরী (১৮)কে  ধর্ষণের অভিযোগে রবি মিয়া (১৮) নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন ।গত বৃহস্পতিবার (৫ নভেম্বর) সন্ধ্যায় ওই কিশোরী বাদী হয়ে পাটগ্রাম থানায় এ মামলাটি দায়ের করেন।ওই কিশোরী পাটগ্রাম উপজেলার বাউরা ইউনিয়নের নবীনগর গ্রামের ফজলে রহমানের মেয়ে।অভিযুক্ত রবি মিয়া উপজেলার জোংরা, মমিনপুর গ্রামের আব্দুল আলীম মিয়ার ছেলে।  মামলার এজাহারে সুত্রে জানা যায়,ওই কিশোরী  একই উপজেলার কুচলিবাড়ি ইউনিয়নের কেরারটারী গ্রামে বোনের বাড়িতে বেড়াতে যান।সেখানে বুধবার (৪ নভেম্বর) সন্ধ্যায় তার বোন ও বোন জামাই বাড়িতে না থাকার সুযোগে বোন জামাইয়ের প্রতিবেশী ভাতিজা রবি মিয়া ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করে। সে সময় মেয়েটির বোন বাড়িতে এসে তাকে উদ্ধার করেন এবং অভিযুক্ত ধর্ষক রবি পালিয়ে যায়।নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক নবীনগর এলাকার কয়েকজন বলেন, পরপর দুই থানায় দুটি ধর্ষন মামলা করায় নবীনগর এলাকার মানুষ অতিষ্ঠ। এ ঘটনায় পাটগ্রাম থানায় বৃহস্পতিবার (৫ নভেম্বর) সন্ধ্যায় নিয়মিত মামলা হিসেবে নথিভুক্ত করে পাটগ্রাম থানা পুলিশ।

পাটগ্রাম থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুমন কুমার মহন্ত  বলেন, ভিকটিম তার বোন জামাইসহ থানায় এসে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।অভিযোগটি আমলে নিয়ে নিয়মিত মামলা হিসেবে নথিভুক্ত করা হয়েছে।  তিনি আরো বলেন, মেয়েটি গত ৯ অক্টোবর কালীগঞ্জের কাকিনায় গণধর্ষণের অভিযোগ তুলে ইউপি সদস্যসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে একটি গণধর্ষণ মামলা দায়ের করেছিলেন। যা দেশব্যাপী বহুল আলোচিত হয়। পাটগ্রাম থানায় এসে প্রথম দিকে সেই ঘটনাটি অস্বীকার করলেও পরে তা স্বীকার করেছেন ওই কিশোরী । তবে এ মামলার পলাতক আসামি রবিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলেও জানান তিনি।