মোহাম্মদপুর থানার ২৯নং ওয়ার্ড জহুরী মহল্লায় আগুনে পুড়ে যাওয়া প্রায় ১৫০টি পরিবারকে আর্থিক সহযোগিতা দিয়েছে বিএনপি।

বৃহস্পতিবার এ আর্থিক সাহায্য তুলে দেন সাবেক ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের ডেপুটি মেয়র, অবিভক্ত ঢাকা মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা মন্ডলির সদস্য আবদুস সালাম।

ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের উদ্দেশ্যে আবদুস সালাম বলেন, সরকারের দায়িত্ব ছিল আগুনে পুড়ে যাওয়া ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়ানো, সরকার সেখানে ব্যর্থ, সরকার আজ দুর্নীতি, চাঁদাবাজিতে ব্যস্ত। বিএনপি জনগণের জন্য রাজনীতি করে বিধায় দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশনায় আমি আপনাদেরকে সামান্য আর্থিক সহযোগিতা করছি এবং ভবিষ্যতে যেকোনো দুর্যোগ, দু:সময়ে আমি আপনাদের পাশে থাকব।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির দফতর সম্পাদক এবি.এম.এ রাজ্জাক, মোহাম্মদপুর থানা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি হাজী মোহাম্মদ ইউসুফ, মোহাম্মদপুর থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এনায়েতুল হাফিজ, আদাবর থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক নাসিরউদ্দিন নাসির, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ ইসহাক, আহম্মদ আলী, জামাল হোসেন টুয়েল, আবুল কালাম আজাদ, মোঃ হানিফ, হাজী জয়নাল, মো. শাহজাহান, ছাত্রনেতা এবিএম সিদ্দিক, জাফর ইকবাল, আরিফুর রহমান আরিফ, মহিলা নেত্রী জুমা আয়শাসহ মোহাম্মদপুর ও আদাবর থানার নেতৃবৃন্দ।

আগামীকাল সকাল ১১টায় ঢাকা মহানগর উত্তর পল্লবী থানাধীন কালশী বাউনিয়া বাঁধে অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন এবং আগুনে ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় মানুষদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ ও তাদের সমবেদনা জানাবেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান প্রফেসর ডাঃ এ জেড এম জাহিদ হোসেন এবং বিএনপি নেতা ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন।