চুনারুঘাট (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ হবিগঞ্জের চুনারুঘাটে ইতিহাসে এক স্মরণীয় দিন ৬ ডিসেম্বর। ১৯৭১ সালের এই দিনে পাকিস্তানী হানাদার বাহিনীর কবল থেকে ( হবিগঞ্জ জেলার অন্তগর্ত) চুনারুঘাট উপজেলা মুক্ত হয়। ১৯৭১ সালের ৫ ডিসেম্বর রাতে চুনারুঘাটের সীমান্ত এলাকা থেকে মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট তোরাব আলী খন্দকার, শামছুল হুদা, আব্দুল গফফারের নেতৃত্বে কয়েক শ’ মুক্তিযোদ্ধা উপজেলা শহরে পাকিস্তানী ক্যাম্পে আক্রমণ করে। ৬ ডিসেম্বর ভোরে পাকিস্তানিদের দোসর রাজাকার, আলবদর, আল শাম উপজেলার বিভিন্ন গ্রামাঞ্চল থেকে আস্তানা গুঁটিয়ে চুনারুঘাটের দিকে চলে আসে এবং পাকসেনারা শ্রীমঙ্গলের দিকে পালিয়ে যায়। মুক্তিযোদ্ধা সানু মিয়া চৌধুরী, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সামাদ পিসিও, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মন্নান সরকারসহ অসংখ্য মুক্তিযোদ্ধা। তাদের অনেকেই এখন আর বেঁচে নেই। তাড়াই ৬ ডিসেম্বর সকালে লাল-সবুজের পতাকা হাতে নিয়ে শহরে প্রবেশ করে জয়বাংলা শ্লোগানে মুখরিত করে তোলেন গোটা অঞ্চল এবং সিও অফিসের সামনে স্বাধীনতার লাল-সবুজ পতাকা উত্তোলন করেন। এদিন থেকেই চুনারুঘাট উপজেলাকে স্বাধীন হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়।