মাসুম বিল্লাহ,বাগেরহাট প্রতিনিধিঃ

ঋণের বোঝা সইতে না পেরে কিটনাশক খেয়ে আত্মহত্যা করেছে বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলার নলবুনিয়া গ্রামের আব্দুল্লাহ (৩৩) নামের এক যুবক। রোববার দিনগত রাত দুইটার দিকে নিজ বাড়িতে আত্মহত্যা করেন তিনি। আব্দুল্লাহ ওই গ্রামের মৃত আব্দুল হাসেম পেয়াদার ছেলে ও নলবুনিয়া বাজারের একজন ফাস্টফুড ব্যবসায়ী।

সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোঃ আলমগীর হোসেন তালুকদার জানান, শোনা যাচ্ছে আব্দুল্লাহ ঋণগ্রস্থ হয়ে হতাশায় ভুগছিল। রোববার রাত ১টার দিকে দোকান বন্ধ করে বাড়ি গিয়ে একটি চিরকুট লিখে। চিরকুটে সে লিখে, আমি মোঃ আব্দুল্লাহ। আমি মারা গেলে আপনাদের কাছে আমার আবেদন। আমার জমি-জমা বিক্রী করে সবার দেনা শোধ করে দিবেন। আমার সম্পত্তি আমার ভাই-বোনকে দিবেন না। এরপর যে জমি থাকবে তাতে আমার স্ত্রী ও মেয়ে থাকবে। তাদের কোথাও তাড়াবে না।

এটা আমার দাবী। সবাই স্বার্থপর শুধু আমি নয়। ইতি মোঃ আব্দুল্লাহ। এরপর স্ত্রীকে আমি চলে যাচ্ছি মেয়েকে দেখে রাখিস বলে চালে দেয়া কিটনাশক ট্যাবলয়েট খায় আব্দুল্লাহ। এসময় স্ত্রীর ডাক চিৎকারে প্রতিবেশীরা এসে আব্দুল্লাহকে শরণখোলা উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে যায়। হাসপাতালে নেওয়ার কিছুক্ষণ পরে তার মৃত্যু হয়। শরণখোলা থানার ওসি মোঃ সাইদুর রহমান বলেন, এ ব্যাপারে একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করে লাশ ময়না তদন্তের জন্য বাগেরহাট মর্গে পাঠানো হবে।