ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধিঃ
লাইনে দাড়িয়ে টিকিট সংগ্রহ করতে বলায় ছাত্রলীগের হাতে লাঞ্ছিত হয়েছেন ঠাকুরগাঁও রোডের স্টেশন মাস্টার আখতারুল ইসলামসহ বেশ কয়েকজন।
শুক্রবার ২৫ মার্চ রাতে এ ঘটনা ঘটে। পরবর্তীতে  এ সংক্রান্ত সিসিটিভির ভিডিও ফুটেজ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে সমালোচনার ঝড় উঠে।
স্টেশন মাস্টার আখতারুল ইসলাম অভিযোগ করে বলেন, মাঝে মাঝেই ঠাকুরগাঁও জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হিমুন সরকার ফোনে কিংবা সশরীরে টিকিট ক্রয় করতে আসেন। গত দুদিন আগে সহকারি স্টেশন মাস্টার অনুপ এর কাছে টিকিট চেয়েছিল হিমুন সরকার । এসময় অনুপ তাকে সশরীরে এসে লাইনে দাড়িয়ে টিকিট ক্রয় করতে বলেন। এমন কথা কেন বলা হলো তাতেই ক্ষিপ্ত হয় হিমুন। তারই জের ধরে শুক্রবার রাত ৮ টার পর ছাত্রলীগের ছেলেদের নিয়ে সহকারী স্টেশন মাস্টার কে খোঁজাখুঁজি করে। এসময় অনুপ না থাকায় আমি নিজেই টিকিট বিক্রীর কাজে নিয়জিত ছিলাম। তাকে না পেয়ে লাইন ছাড়াই ছাত্রলীগের ছেলেদের কেন টিকিট দেওয়া হবে না তা জানতে বাকবিতণ্ডা শুরু করে। এক পর্যায়ে ধর ধর বলে আমাকে ও আমার সহকারীদের কক্ষ থেকে টেনে হেঁচড়ে বাইরে নিয়ে লাঞ্ছিত করে। পরে লোকজনের উপস্থিতি বাড়লে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে সবাই।  আর এর নেতৃত্ব দেয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হিমুন সরকার।
এ ঘটনার পর তাৎক্ষণিকভাবে স্থানীয় এমপি রমেশ চন্দ্র সেন রেল বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের জানিয়েছেন বলে জানান তিনি।
আর অভিযুক্ত জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হিমুন সরকার বলেন, বিষয়টি তুচ্ছ, এ ঘটনার সাথে আমি জড়িত ছিলাম না। যাদের সাথে বাক বিতণ্ডা হয়েছিল তাদের সঙ্গে নিয়ে স্টেশন মাস্টারের সাথে কথা বলে বিষয়টি মীমাংসা করে দিয়েছি।
এ বিষয়ে সদর থানার ওসি তানভীরুল ইসলাম জানান,এ ঘটনার লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায়